রাত ১২:৩৫,শুক্রবার, ১৫ই নভেম্বর, ২০১৯ , ১লা অগ্রহায়ণ, ১৪২৬
সংবাদ শিরোনাম :

ময়মনসিংহ-১০,গফরগাঁও আসন গোলন্দাজ বাহিনীর ‘সাইবার অস্ত্র’, লক্ষ্য তরুন প্রজন্ম


আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে উপজেলার তরুন প্রজন্মনের লক্ষাধিক ভোটারকে সামনে রেখে ‘সাইবার’কে হাতিয়ার করে সামাজিক যোগাযোগ (সোশ্যাল মিড়িয়া) মাধ্যমগুলোতে ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা সরব । উপজেলায় সরকারের নানা উন্নয়ন কর্মকান্ড তুলে ধরে নৌকা মার্কায় ভোট চাওয়ার পাশাপাশি সরকার ও দলের বিরুদ্ধে কুৎসা, ভূয়া খবর, গুজবের জবাব দিয়ে সোশাল মিডিয়াগুলোতে নিয়মিত পোষ্ট দিচ্ছেন জন প্রতিনিধি থেকে শুরু করে স্থানীয় এমপি বাবেল গোলন্দাজের অনুসারী আওয়ামীলীগ ও সহযোগি সংগঠনের তৃণমূলের হাজারো নেতাকর্মী।
স্থানীয় এমপি ফাহমী গোলন্দাজের অনুসারী উপজেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনসমূহের প্রায় ১০/১২ হাজার সক্রিয় নেতা নেতাকর্মীর রয়েছে ফেসবুক একাউন্ট। এসব একাউন্টের টাইমলাইন বা নিউজ ফিডে সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কার্যক্রম, কুৎসা,গুজবের জবাবের পাশাপাশি নিজেদের সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মকান্ড নিয়মিত তুলে ধরছেন তারা।
স্থানীয এমপি ফাহমী গোলন্দাজ বাবেলের ফেইসবুক আইডির ৫ হাজার বন্ধু ছাড়াও প্রায় ৬০ হাজার ফলোয়ার রয়েছে। চলতি সপ্তাহে স্থানীয় এমপি ফাহমী গোলন্দাজ বাবেলের ফেসবুকের টাইমলাইনে দেখা গেছে, উপজেলায় সড়ক যোগাযোগ, বিদ্যুৎ,স্বাস্থ্য ও শিক্ষা খাতে উন্নয়ন এবং উপজেলায় সন্তোষজনক আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ে একাধিক ইতিবাচক পোষ্ট।

টাংগাব ইউপি মোফাজ্জল হোসেন সাগরের ফেসবুকের টাইমলাইনে দেখা গেছে নৌকায় ভোট চেয়ে টাংগাব ইউনিয়নবাসীর মধ্যে সরকারের পক্ষ থেকে বিনামূল্যে সোলার প্যানেল,ভিজিএফ,ভিজিডি,জিআরের চাল, ১০ টাকা কেজি দরে চাল, ঢেউ টিন, মাতৃত্বকালিন ভাতা বিতরন ও টাংগাব ইউনিয়নে চলমান বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ডের প্রচারনা। লংগাইর ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল আমিন বিপ্লব ও যশরা ইউপি চেয়ারম্যান তারিকুল ইসলাম রিয়েল,রাওনা ইউপি সাহাবুর আলম বর্তমান সরকারের গত পাঁচ বছর সময়ে যশরা ও লংগাইর,রাওনা ইউনিয়নে রাস্তা-ঘাট,শিক্ষা ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে উন্নয়ন, কৃষি,সেচ ও বিদ্যুৎ ব্যবস্থায় ইতিবাচক পরিবর্তনের চিত্র ও খতিয়ান তুলে ধরেন।
রাওনা ইউপি ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ সাহাবুল আলম বলেন, গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পরপরই স্থানীয় এমপি ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের আওয়ামীলীগ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীদের ফেসবুক একাউন্ট খুলে তার মাধ্যমে দলের পক্ষে প্রচারনা চালানোর নির্দেশনা দেন এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় দলের পক্ষে কে কেমন সরব তা খতিয়ে দেখে পুরস্কারের ঘোষনা দেন। এর পর থেকেই সরকার দলের নেতাকর্মীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও টুইটারে তাদের তৎপরতা শুরু করে।

পৌর মেয়র আলহাজ¦ ইকবাল হোসেন সুমন বলেন, সরকার ও আওয়ামীলীগকে বেকায়দায় ফেলতে সোশাল মিডিয়ার যেখানে ভূয়া খবর, কুৎসা, গুজব করা হয় সেখানেই তথ্য ও পরিসংখ্যান দিয়ে জবাব দেয় গফরগাঁও উপজেলার হাজারো নেতা কর্মী । এতে গফরগাঁও উপজেলার তরুন সমাজ বিভ্রান্তি থেকে রক্ষা পাচ্ছে।

স্থানীয় এমপি ও উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের কল্যানে পুরো বাংলাদেশ আজ ডিজিটালাইজড। আর গফরগাঁও উপজেলার ডিজিটালাইজড।তরুন প্রজন্মকে এ উপজেলায় বর্তমান সরকারের পাঁচ বছরে দেড় হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন বিষয়ে আপডেট করতে সোশ্যাল মিডিয়া সবচেয়ে বেশি কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে। 

Express Your Reaction
Like
Love
Haha
Wow
Sad
Angry
শর্টলিংকঃ
সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
Inline
Inline