মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:০১ পূর্বাহ্ন

গফরগাঁওয়ে বালতির পানিতে ডুবে শিশু ও নদীতে ডুবে কিশোরের মৃত্যু

শাখাওয়াত হোসেন
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ৬ আগস্ট, ২০২১
  • ১৪৯৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
গফরগাঁওয়ে বালতির পানিতে ডুবে শিশু ও নদীতে ডুবে কিশোরের মৃত্যু 23

ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার যশরা ইউনিয়নের পালইকান্দা গ্রামে বালতির পানিতে ডুবে মরয়িম আক্তার নামে দেড় বছর বয়সি এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। মরিয়ম আক্তার পালইকান্দা গ্রামের হাফেজ মুজিবুর রহমানের মেয়ে।
শিশুর পরবিার ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, সকাল ৯ টার দিকে মরিয়মকে বাড়ির উঠোনে খেলতে দিয়ে বাড়ির কাজ করছিলেন তা মা। এই ফাঁেক সে হামাগুড়ি দিয়ে উঠোনে রাখা বালতির কাছে চলে যায়। পরে সেখানে সে ভরা বালতিতে ডুবে যায়। পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁিজর এক পর্যায়ে বালতির পানি থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে। যশরা ইউপি চেয়ারম্যান তারিকুল ইসলাম রিয়েল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
অপরদিকে যশরা ইউনিয়নের যশরা গ্রামে শুক্রবার সকালে সুতিয়া নদীতে মাছ গিয়ে পানিতে ডুবে আব্দুল আহাদ (১৫) নামে এক মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। আহাদ যশরা গ্রামের রইছ উদ্দিনের ছেলে । সে মাদ্রাসায় পড়ালেখা করতো। করোনাকালিন সময়ে মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় সে শিবগঞ্জ বাজারে একটি দোকানে কাঠমিস্ত্রির কাজ করতো।
এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, সকাল সাড়ে দশটার দিকে সুতিয়া নদীতে মাছ ধরার সময় পা পিছলে নদীর পানিতে পড়ে যায় এবং সাঁতার না জানায় পানিতে তলিয়ে যায় আহাদ। খবর পেয়ে দমকল বাহিনীর কর্মীরা দেড় ঘন্টার চেষ্টায় দুপুর ১২ টার দিকে সুতিয়া নদী থেকে মৃত আহাদের লাশ উদ্ধার করে।

দৈনিক বাংলা পত্রিকা / আতাউর রহমান মিন্টু

Express Your Reaction
Like  গফরগাঁওয়ে বালতির পানিতে ডুবে শিশু ও নদীতে ডুবে কিশোরের মৃত্যু like
Love  গফরগাঁওয়ে বালতির পানিতে ডুবে শিশু ও নদীতে ডুবে কিশোরের মৃত্যু love
Haha  গফরগাঁওয়ে বালতির পানিতে ডুবে শিশু ও নদীতে ডুবে কিশোরের মৃত্যু haha
Wow  গফরগাঁওয়ে বালতির পানিতে ডুবে শিশু ও নদীতে ডুবে কিশোরের মৃত্যু wow
Sad  গফরগাঁওয়ে বালতির পানিতে ডুবে শিশু ও নদীতে ডুবে কিশোরের মৃত্যু sad
Angry  গফরগাঁওয়ে বালতির পানিতে ডুবে শিশু ও নদীতে ডুবে কিশোরের মৃত্যু angry

Facebook Comments

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2018 dainikbanglapatrika
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Aanin Mahmodul
themebazar-2281