শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ১০:৪১ পূর্বাহ্ন

পুলিশের ধারনা, মা ও দুই মেয়েকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয় চারজনকে

শাখাওয়াত হোসেন
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৪ এপ্রিল, ২০২০
  • ১১২৩০ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
পুলিশের ধারনা, মা ও দুই মেয়েকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয় চারজনকে 2 1 600x337

মালয়েশিয়া প্রবাসী শ্রীপুর উপজেলার জৈনা বাজার এলাকার বাসিন্দা রেজোয়ান কাজলের স্ত্রী সন্তান সহ চারজনকে গলা কেটে হত্যার রহস্য উন্মোচনে কাজ শুরু করেছে পুলিশ।

পুলিশ ইতিমধ্যে নিহত ইন্দোনেশিয়ান বংশদ্ভূত বিথী ফাতেমা(৪০) এর দেবর আরিফ,খুন হওয়া বড় মেয়ে সাবরিনা সুলতানা নূরার এক বন্ধু তরিকুল সহ ৭-৮ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে ।

বৃহস্পতিবার রাতে প্রবাসী কাজলের বাবা আবুল হোসেন বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ।

গাজীপুরের পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার জানান,বৃহস্পতিবার সিআইডির ফরেনসিক বিভাগ লাশগুলো উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমেদ মেডিকেল কলেজে পাঠায়। প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে মা ও দুই মেয়েকে ধর্ষণের গলাকেটে হত্যা করা হয়েছে।

উল্লেখ্য গত ২৩ এপ্রিল গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার জৈনা বাজার এলাকায় একটি দোতলা বাসা থেকে গফরগাঁওয়ের গোলাবাড়ি গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী রেজোয়ান কাজলের স্ত্রী সন্তান সহ চারজনের বিবস্ত্র গলাকাটা লাশ উদ্বার করে পুলিশ।

দৈনিক বাংলা পত্রিকা /আতাউর রহমান মিন্টু

Express Your Reaction
Like  পুলিশের ধারনা, মা ও দুই মেয়েকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয় চারজনকে like
Love  পুলিশের ধারনা, মা ও দুই মেয়েকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয় চারজনকে love
Haha  পুলিশের ধারনা, মা ও দুই মেয়েকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয় চারজনকে haha
Wow  পুলিশের ধারনা, মা ও দুই মেয়েকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয় চারজনকে wow
Sad  পুলিশের ধারনা, মা ও দুই মেয়েকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয় চারজনকে sad
Angry  পুলিশের ধারনা, মা ও দুই মেয়েকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয় চারজনকে angry

Facebook Comments

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2018 dainikbanglapatrika
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Aanin Mahmodul
themebazar-2281