মঙ্গলবার, ০২ জুন ২০২০, ০৫:০৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
জিপিএ- ৫ পেয়েছে মা. বোন, ভাইয়ের সাথে খুন হওয়া গফরগাঁওয়ের সেই নূরা সামান্য বৃষ্টিতেই গফরগাঁও-টোক সড়কে ভাঙন গফরগাঁওয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নারীর মৃত্যু গফরগাঁওয়ে নতুন করে দুইজন করোনায় আক্রান্ত গফরগাঁওয়ে আর্থিং এর তারে হাত দিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু গফরগাঁওয়ে মাদ্রাসার শিক্ষক-কর্মচারীর বিরুদ্ধে সড়কের গাছ কাটার অভিযোগ ইউনাইটেড হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ড গফরগাঁওয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় ২ মোটর সাইকেল আরোহী নিহত গফরগাঁওয়ে ১৬বছরের কিশোরের হাতে ৫ বছরের শিশু ধর্ষিত গফরগাঁওয়ে কওমি মাদ্রাসার এতিম ও দুঃস্থ শিক্ষার্থীদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর অনুদান ও শিশুখাদ্য বিতরন

শাবান মাসে রোজার ফজিলত

দৈনিক বাংলা পত্রিকা ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১০ এপ্রিল, ২০২০
  • ৫৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
শাবান মাসে রোজার ফজিলত 04

আমাদের এ ব্যস্ততম জীবনে যতটুকু ইবাদত-বন্দেগি করি তার বেশিরভাগই অন্যের দোষ বর্ণনা করে, অপরের জীবন কঠিন করার পেছনে, নানা ধরনের অনর্থক কাজে নষ্ট করে ফেলি না জেনেই। মানুষের এ সহজাত প্রবৃত্তির পুণরাবৃত্তির কারণে দয়াময় আল্লাহতায়ালার কাছে ক্ষমার উদ্দেশ্যে আমাদের কিছু অতিরিক্ত ইবাদত-বন্দেগি করা উচিত। যাকে আমরা নফল ইবাদত বলিনফল ইবাদতের মধ্যে রোজা অন্যতম। আল্লাহতায়ালার নৈকট্য অর্জনের জন্য, ফরজ-ওয়াজিব নয়- এমন রোজা পালনকেই নফল রোজা বলা হয়। নফল রোজার অনেক বড় ফজিলত ও সওয়াব রয়েছে।হজরত আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত এক হাদিসে কুদসিতে এসেছে, তিনি বলেন, হজরত রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, আদম সন্তানের প্রতিটি আমলের সওয়াব দ্বিগুণ করে দেওয়া হয়। পুণ্যকর্মের সওয়াব দশগুণ থেকে সাতশ’ গুণ বাড়িয়ে দেওয়া হয়। আল্লাহতায়ালা বলেন, তবে রোজা ব্যতীত। কারণ রোজা আমার আর আমিই এর প্রতিদান দিই। -সহিহ বোখারি ও মুসলিম

আলহামদুলিল্লাহ! কি অভাবনীয় সুযোগ। মহিমান্বিত শাবান মাস চলছে। মাহে রমজানের আগমনি বার্তা নিয়ে আসে শাবান মাস। রমজানের আগাম প্রস্তুতির তাগিদ নিয়ে আসে এ মাস। ইসলামের দৃষ্টিতে মাসটি বিভিন্ন কারণে বিশেষ গুরুত্ব ও তাৎপর্যপূর্ণ।

এ মাসকে নবী করিম (সা.) শাবানু শাহরি (শাবান আমার মাস) বলে অবহিত করেছিলেন। নবী করিম (সা.) শাবান মাস থেকেই রমজানের প্রস্তুতি নিতেন। রজব ও শাবানজুড়েই তিনি রমজানের অধীর অপেক্ষায় থাকতেন। এর ধারাবাহিকতায় রজবের শুরু থেকেই হজরত রাসূলুল্লাহ (সা.) দোয়া করতেন- আল্লাহুম্মা বারিক লানা ফি রাজাবা ওয়া শাবান, ওয়া বাল্লিগনা রামাজান। অর্থাৎ হে আল্লাহ! আপনি আমাদের রজব ও শাবান মাসে বরকত দিন এবং আমাদের রমজান পর্যন্ত পৌঁছে দিন (রমজান পর্যন্ত আমাদের আয়ু বৃদ্ধি করে দিন, যাতে আমরা রমজানে যথাযথ আমল করতে পারি)।

রমজানের আগমনের জন্য মহানবী (সা.) দিনক্ষণ গণনা করতেন। আম্মাজান হজরত আয়েশা (রা.) থেকে বর্ণিত, হজরত রাসূলুল্লাহ (সা.) শাবান মাসের (দিন-তারিখের হিসাবের) প্রতি এত অধিক লক্ষ্য রাখতেন, যা অন্য মাসের ক্ষেত্রে রাখতেন না। -সুনানে আবু দাউদ: ২৩২৫

নবী করিম (সা.) শাবান মাসে অধিকহারে নফল রোজা রাখতেন। হজরত উম্মে সালমা (রা.) বলেন, আমি হজরত রাসূলুল্লাহ (সা.)-কে শাবান ও রমজান মাস ছাড়া অন্য কোনো দুই মাস একাধারে রোজা রাখতে দেখিনি। -সুনানে আবু দাউদ: ২৩৩৬

হজরত আয়েশা (রা.) বলেন, আমি নবী করিম (সা.)-কে শাবান মাসের মতো এত অধিক (নফল) রোজা আর অন্যকোনো মাসে রাখতে দেখিনি। এ মাসের সামান্য কয়েক দিন ছাড়া সারা মাসই তিনি রোজা রাখতেন। -সুনানে তিরমিজি: ৭৩৭

অন্য হাদিসে ইরশাদ হয়েছে, হজরত আনাস (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, একবার রাসূলুল্লাহ (সা.)-কে জিজ্ঞেস করা হলো, রমজানের পর কোন মাসের রোজা সবচেয়ে বেশি ফজিলতপূর্ণ? উত্তরে তিনি বলেন, শাবানের রোজা রমজানের সম্মানার্থে। -সুনানে তিরমিজি: ৬৬৩

সাহাবি হজরত উসামা ইবনে যায়েদ (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি বললাম, হে আল্লাহর রাসূল! আমি আপনাকে শাবানের মতো অন্যকোনো মাসে রোজা রাখতে দেখি না? তিনি বললেন, রজব ও রমজানের মাঝের এ মাসটি সম্পর্কে মানুষ উদাসীন থাকে। আর এ মাসে রাব্বুল আলামীনের দরবারে আমল ওঠানো হয়। রোজা পালন অবস্থায় আমার আমল ওঠানো হোক এটা আমার পছন্দ। -বর্ণনায় নাসায়ি ।

দৈনিক বাংলা পত্রিকা / আতাউর রহমান

Express Your Reaction
Like  শাবান মাসে রোজার ফজিলত like
Love  শাবান মাসে রোজার ফজিলত love
Haha  শাবান মাসে রোজার ফজিলত haha
Wow  শাবান মাসে রোজার ফজিলত wow
Sad  শাবান মাসে রোজার ফজিলত sad
Angry  শাবান মাসে রোজার ফজিলত angry

Facebook Comments

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2018 dainikbanglapatrika
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Aanin Mahmodul
themebazar-2281