সোমবার, ০১ জুন ২০২০, ০৩:২২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
জিপিএ- ৫ পেয়েছে মা. বোন, ভাইয়ের সাথে খুন হওয়া গফরগাঁওয়ের সেই নূরা সামান্য বৃষ্টিতেই গফরগাঁও-টোক সড়কে ভাঙন গফরগাঁওয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নারীর মৃত্যু গফরগাঁওয়ে নতুন করে দুইজন করোনায় আক্রান্ত গফরগাঁওয়ে আর্থিং এর তারে হাত দিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু গফরগাঁওয়ে মাদ্রাসার শিক্ষক-কর্মচারীর বিরুদ্ধে সড়কের গাছ কাটার অভিযোগ ইউনাইটেড হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ড গফরগাঁওয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় ২ মোটর সাইকেল আরোহী নিহত গফরগাঁওয়ে ১৬বছরের কিশোরের হাতে ৫ বছরের শিশু ধর্ষিত গফরগাঁওয়ে কওমি মাদ্রাসার এতিম ও দুঃস্থ শিক্ষার্থীদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর অনুদান ও শিশুখাদ্য বিতরন

নির্জন সৈকতে কাছিম, কাঁকড়া ও শামুকের রাজত্ব

রিপোটারের নাম
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২ এপ্রিল, ২০২০
  • ৫১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
নির্জন সৈকতে কাছিম, কাঁকড়া ও শামুকের রাজত্ব resize 3 600x335

দেশে চলমান করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত ভ্রমণে  চলছে টানা নিষেধাজ্ঞা। ১২০ কিলোমিটার দীর্ঘ সৈকতজুড়ে এখন কেবলই নির্জনতা। সাগরের ঢেউয়ের গর্জন ছাড়া আর কোন কোলাহল নেই। নির্জন এ সৈকতে রাজত্ব করছে সামুদ্রিক কাছিম, বিভিন্ন প্রজাতির কাঁকড়া ও শামুক। সৈকতের এমন দৃশ্য একেবারেই বিরল।

সৈকতের বর্তমান পরিস্থিতিকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন পরিবেশবাদীরা। পাশাপাশি এসব প্রাণ-প্রকৃতি, জীববৈচিত্র্য রক্ষায় সৈকতের কয়েকটি অংশকে প্রকৃতিবান্ধব হিসেবে গড়ে তোলার উদ্যোগ জরুরি বলে মনে করেন তারা।

সরেজমিনে কয়েকটি পয়েন্ট ঘুরে দেখা যায়, ফাঁকা সৈকতজুড়ে ছড়িয়ে রয়েছে শামুক-ঝিনুক। এদিক-ওদিক ছুটাছুটি করছে লাল কাঁকড়ার দল। মাঝে মাঝে কূলে উঠে আসছে সামুদ্রিক কাছিম। তা দেখছেন শুধুই বিচ কর্মী ও লাইফগার্ড কর্মীরা।

জানা যায়, বঙ্গোপসাগরের বাংলাদেশ উপকূলে রয়েছে, ৩৬ প্রজাতির চিংড়ি, ৫ প্রজাতির লবস্টার, ৩৩৬ প্রজাতির শামুক-ঝিনুক, ১৬ প্রজাতির কাঁকড়া, ৭ প্রজাতির কাছিম, ১০ প্রজাতির ডলফিন, তিন প্রজাতির তিমি ও ২০০ প্রজাতির সি-উইড। যা সংরক্ষণের অভাবে হারিয়ে যেতে বসেছে। সচরাচর কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের ১১ টি পয়েন্ট সারা বছর পর্যটকে ভরপুর থাকে, সেসব পয়েন্টে এসব জলজপ্রাণীর দেখা মিলত না। পাশাপাশি পরিবেশ দূষণও এর অন্যতম কারণ বলছেন পরিবেশবাদীরা।

এছাড়াও গত ১৮ মার্চের পর কয়েকদফা ডলফিন শো দেখেছেন বিচ কর্মীরা। যা রীতিমত অবাক করেছে সবাইকে। নতুন করে গজিয়েছে সাগর লতা। প্রাণ-প্রকৃতির এমন আচরণে কক্সবাজারবাসী বিস্ময় প্রকাশ করেছে।

বিচ কর্মী মাহবুবুর রহমান বলেন, সৈকতের কয়েকটি পয়েন্টে শামুক-ঝিনুক ও কাঁকড়ার দেখা মিলেছে। যা পর্যটক চলাচলের সময় এখানে দেখা যেত না। কলাতলী থেকে মেরিন ড্রাইভের প্রবেশমুখে সৈকতে দেখা গেছে কাছিম। এটিও মাঝে মাঝে দেখা যেত। কিন্তু এখন কিছুদিন পর পর কুলে আসছে।

কক্সবাজার পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আয়াছুর রহমান বলেন, সমুদ্র সৈকতে মানুষের অবাধ বিচরণের কারণে সেখানকার প্রকৃতি, জীববৈচিত্র্য এখন হুমকির মুখে। এক সময় সৈকতজুড়ে দেখা যেত লাল কাঁকড়ার দৌড়ঝাঁপ। সেই দৃশ্য এখন আমরা হারাতে বসেছি। আশার কথা হলো, অন্তত এই দুর্যোগময় মুহূর্তে প্রকৃতি তার নিজের পরিবেশ ফিরে পেয়েছে।

উল্লেখ্য, দেশজুড়ে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকি বেড়ে যাওয়ায় জনসমাগম রোধে ১৮ মার্চ থেকে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে জেলা প্রশাসন। পাশাপাশি হোটেল-মোটেলসহ সৈকতের আশেপাশে সব ধরনের অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হয়। বর্তমানে কক্সবাজারের সঙ্গে দূরপাল্লার বাস চলাচলও বন্ধ রয়েছে। ফলে কক্সবাজার সমুদ্র্র সৈকত পর্যটক শূন্য। আর এ সুযোগে লোকালয়ের একদম কাছে চলে এসেছে ডলফিন, কাছিমসহ অনেক জলজপ্রাণী।

Express Your Reaction
Like  নির্জন সৈকতে কাছিম, কাঁকড়া ও শামুকের রাজত্ব like
Love  নির্জন সৈকতে কাছিম, কাঁকড়া ও শামুকের রাজত্ব love
Haha  নির্জন সৈকতে কাছিম, কাঁকড়া ও শামুকের রাজত্ব haha
Wow  নির্জন সৈকতে কাছিম, কাঁকড়া ও শামুকের রাজত্ব wow
Sad  নির্জন সৈকতে কাছিম, কাঁকড়া ও শামুকের রাজত্ব sad
Angry  নির্জন সৈকতে কাছিম, কাঁকড়া ও শামুকের রাজত্ব angry

Facebook Comments

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© All rights reserved © 2018 dainikbanglapatrika
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Aanin Mahmodul
themebazar-2281